ছেলেদের যে ৪ টি জিনিস মেয়েরা খুবই অপছন্দ করে

আপনি কি জানতে চান কেন আপনি মেয়েদের কাছে অপ্রিয় মানুষ? বুঝতে পারছেন না আপনার কোন স্বভাবের কারণে মেয়েদের কাছে আপনি পাত্তাহীন? তাহলে পড়ে ফেলুন আমাদের আজকের পোস্ট আর এখন থেকেই সাবধান হোন।

ছেলেদের যে ৪ টি জিনিস মেয়েরা খুবই অপছন্দ করে
ছেলেদের যে ৪ টি জিনিস মেয়েরা খুবই অপছন্দ করে


পৃথীবিতে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের মানুষ। পুরো দুনিয়ার কথা বাদই দিলাম, আমাদের আশেপাশেই হাজারো রকম আচার আচরণ, ব্যক্তিত্বের মানুষ আমরা সচরাচর খুজে পাই। একেক জনের পছন্দ, অপছন্দ, চরিত্র সব একেক রকম হয়ে থাকে। এছাড়াও ছেলে ও মেয়েদের ভিতরেও রয়েছে অনেক ধরনের মিল ও অমিল।


কারও সাথে অন্য কাউকে মেলানো যায়না কখনোই। তবে এসব কিছুর ভিতরেও এমন কিছু কমন জিনিস আছে যা ছেলে এবং মেয়েদের ভিতর প্রায় একইরকম থাকে। এবং প্রায় সব ক্ষেত্রেই এগুলো পরীক্ষিত ও মিলিত। যেমন ধরুন, সুন্দরী মেয়ে দেখলে ছেলেদের মনে পুলক জাগাটা সবসময়ই স্বাভাবিক।


আবার ধরুন ছেলেরা কথা বলতে চাইলে মেয়েদের ইগো দেখানোটাও খুব স্বাভাবিক একটা বিষয়। ঠিক এভাবেই, ছেলে ও মেয়েদের পছন্দ, অপছন্দের আরও কিছু দিক রয়েছে যেগুলো সম্বন্ধে অনেক ধরনের মতামত রয়েছে। আজকে আমরা এ সম্বন্ধেই আলোচনা করবো।


আজ আমরা জানবো, ছেলেদের এমন ৪ টি জিনিস সম্বন্ধে যা মেয়েরা খুবই অপছন্দ করে বা সহ্য করতে পারেনা। তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনায় যাওয়া যাক। 


ছেলেদের এমন কিছু জিনিস বা অভ্যাস যা মেয়েরা অপছন্দ করে:


১. জেদ বা জেদি ছেলে 

মেয়েরা কখনই জেদি ছেলেদের পছন্দ করেনা। কারণ, জেদি ছেলেরা সবসময়ই জেদের বশে অনেক বাজে সিদ্ধান্ত নেয় বা মেয়েদের উপরে অনেক প্রেসার দিয়ে থাকে। যেটা মেয়েরা একদমই পছন্দ করে না। যেমন ধরুন, দুইটি ছেলে মেয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে।


হঠাৎ একদিন মেয়েটিকে ছেলেটি অনেকবার কল করল এবং হয়তো ব্যস্ত থাকার কারণে মেয়েটি ফোন রিসিভ করতে পারলো না। তখন পরে মেয়েটি যখন কল ব্যাক করলো, তখন ছেলেটি জিজ্ঞাসা করলো এর কারণ কি। তখন হয়তো মেয়েটি বলতে চাইলোনা। আর এতে ছেলেটি জেদের বশে বলে বসলো, না বললে তোমার সাথে আর কোনো কথা নেই।


এভাবে শুধুমাত্র জেদের কারণে সম্পর্ক নষ্টও হতে পারে। আর এছাড়াও আরও অনেক সমস্যায় মেয়েরা পড়ে থাকে ছেলেদের জেদ নিয়ে। তাই এসব সমস্যার কথা জেনে বুঝেই মেয়েরা কখনোই জেদি টাইপের ছেলেদের পছন্দ করেনা।


তাই আপনি যদি জেদি হয়ে থাকেন, এখনি নিজেকে নিয়ন্ত্রণে আনুন, নয়তো কোনো মেয়ের পাত্তা পাবেন না। তখন আফসোস করেও কাজ হবেনা। মেয়েদের ব্যক্তিগত জীবন অবশ্যই থাকবে। সেটাকে সম্মান দিয়ে অবশ্যই সবসময় জেদকে প্রাধান্য দেবেন না। কথাটা মাথায় রাখুন, কাজে দেবে। 


আরও পড়ুন: অনলাইন নিউজপেপারে আর্টিকেল লেখার জন্য সেরা কন্টেন্ট এর তালিকা


২. ব্যঙ্গ করা বা অতিরিক্ত হাসাহাসি করা

এমন অনেক ছেলে আছে যারা অন্যদের নিয়ে সবসময় অনেক বেশি ব্যঙ্গ করে বা হাসাহাসি করে থাকে। এমন ছেলেরা সবার কাছে, বিশেষত মেয়েদের কাছে নিজেকে সেরা হিসাবে প্রকাশ করার জন্য, অন্যদের সম্বন্ধে, এমনকি নিজের বন্ধুবান্ধব এর নামেও বদনাম, হাসাহাসি বা ব্যঙ্গ করে থাকে।


সে নিজেকে সব কাজে সেরা মনে করে এবং সবাইকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করার জন্য মেয়েদের কাছে সবাইকে নিয়ে তামাশা করে ও মনে করে, মেয়েটি হয়তো এতে তাকে স্মার্ট ভাববে। কিন্তু আসলেই কি তাই? মোটেই না বন্ধুরা, কারণ অন্যদের ছোট করে, বা নিজের বন্ধুকে ছোট করা বোকামির কাজ। কারণ এতে অন্য যে কেউ বুঝতে পারে, যে তাকেও এমন ছোট করে আপনি কাল অন্য কাউকে পটানোর চেষ্টা করবেন।


সুতরাং এমন স্বভাবের ছেলেদের মেয়েরা কখনই পছন্দ করেনা। তাই যদি আপনি এমন স্বভাবের হয়ে থাকেন অবশ্যই শুধরে যান, নইলে গার্ল্ফ্রেন্ড তো দূরের কথা, বন্ধুও পাবেন না কখনো। অবশ্যই সবসময় চেষ্টা করুন মিশুক হওয়ার এবং সবার প্রশংসা করার, এতে আপনি মেয়ে এবং ছেলে সবার কাছেই প্রিয় হতে পারবেন।


আরও পড়ুন: স্মার্টফোনের মাধ্যমে টাকা আয়ের জন্য যে বিষয়গুলো জানা আবশ্যক


৩. বেশি কথা বলা বা বাচালতা

এমন অনেক ছেলেরা আছেন যারা সবসময় প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি কথা বলে থাকেন। মনে রাখবেন, এ ধরনের ছেলেদের মেয়েরা কখনোই পছন্দ করে না। কারণ, এ ধরনের ছেলেরা অপ্রয়োজনীয় কথা বলে বলে মেয়েরা তাদের সাথে মিশতে বা কথা বলতে অসুবিধা বোধ করে আর তাদের উপেক্ষা করে চলে।


যেমন ধরুন, আপনি যদি কোনো মেয়ের সামনে বসে ছোট্ট কোনো ব্যাপার নিয়ে আলোচনা থেকে নিজের সম্বন্ধে বা অন্য কোনো টপিক নিয়ে লাগাতার ননস্টপ বকবক করতে থাকেন, তাহলে অবশ্যই সে বিরক্ত বোধ করবে এবং নেক্সট টাইম আপনার সাথে আর কথা বলতে চাইবেনা।


আর শুধু মেয়ে কেনো, এরকম স্বভাব থাকলে কোনো ছেলেও আপনার কাছে ঘেসতে চাইবেনা। তাই সময় থাকতে এমন অভ্যাস থাকলে সেখান থেকে দূরে চলে আসুন আর স্বল্পভাষী হোন। যে বিষয়ে যতটুকু কথা বলা প্রয়োজন ততটুকুই বলুন এবং আপনার সামনের মেয়েটিকে কথা বলার সুযোগ বেশি দিন। এতে আপনার সুবিধা হবে এবং মেয়েদের প্রিয় হতে পারবেন। 


৪. আনস্মার্ট বা ব্যাকডেটেড হওয়া

মেয়েরা কখনই আনস্মার্ট বা ব্যাকডেটেড ছেলেদের পছন্দ করেনা। মূলত কোনো মানুষই আনস্মার্ট ছেলেদের পছন্দ করেনা। আপনি যদি নোংরা পোশাকে, পাগলের মতো ঝাকড়া চুল নিয়ে, অপরিষ্কার অবস্থায় কারও সাথে দেখা করতে যান বা বাজে, অপটু ভাষায় কথাবার্তা বলেন, তাহলে কোনো মানুষই আপনাকে পছন্দ করবেনা এবং আপনার ধারেকাছে আসবেনা।


তবে যদি আপনি গরীবও হন কিন্তু স্মার্ট হন, তাহলে দেখবেন সবাই আপনাকে পছন্দ করবে এবং প্রায়োরিটি দেবে। সুতরাং মেয়েদের অপছন্দের হাত থেকে বাচতে চাইলে অবশ্যই স্মার্টভাবে চলাফেরা করুন।


আরও পড়ুন: অনলাইন পন্যের বিক্রয় বাড়ানোর ৫ টি অব্যর্থ কৌশল


উপসংহার

তো সুপ্রিয় পাঠকগণ, আজকে এই ছিল মেয়েরা অপছন্দ করে ছেলেদের এমন কিছু জিনিস বা অভ্যাস নিয়ে আমাদের আজকের পোস্ট। আশা করি পোস্টটি আপনাদের সবার ভালো লাগবে।


আপনাদের যদি পোস্টটি নিয়ে যেকোনো প্রশ্ন বা মতামত থেকে থাকে, তাহলে আমাদের জানাতে পারেন কমেন্ট সেকশনে। আবার দেখা হবে নতুন কোনো পোস্টে, নতুন কোনো তথ্য নিয়ে। ততক্ষণ অব্দি সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। সবাইকে শুভকামনা জানিয়ে আজক্র মতো শেষ করছি!